কুমিল্লা খবর

তিতাসের সংবাদপত্র বিক্রেতা ছাদেক মিয়া সমাজসেবক হতে চায়

তিতাসের সংবাদপত্র বিক্রেতা ছাদেক মিয়া সমাজসেবক হতে চায়

 নিজস্ব প্রতিনিধি॥
কুমিল্লা তিতাস উপজেলার মহিষমারি গ্রামের সংবাদপত্র বিক্রেতা মোঃ ছাদেক মিয়া সমাজসেবক হতে চায়।
কুমিল্লা জেলাধীন তিতাস উপজেলার মহিষমারি গ্রামের মরহুম আব্দুল সুবাহান মিয়ার পুত্র মোঃ ছাদেক মিয়া একজন সংবাদপত্র বিক্রেতা। তিনি দীর্ঘদিন দাউদকান্দি, তিতাস ও হোমনা উপজেলায় কুমিল্লার বিভিন্ন আঞ্চলিক পত্রিকা বিক্রি করে জীবিকা নির্বাহ করে আসছেন।
অভাব অনটনের সংসার ছাদেক মিয়ার। মা, ভাই, বোন ও একমাত্র মেয়েকে নিয়ে তিনি পত্রিকা বিক্রি করে সংসার চালান। ঝড়-বৃষ্টি ও রোদ্র যত রকমের বাঁধাই আসুক না কেনো, তিনি প্রতিদিন ছুটে চলেন তার নিয়মিত পত্রিকার প্রিয় গ্রাহকদের ঘরের দুয়ারে দুয়ারে। বিশেষ করে উপজেলার হাট-বাজারই ছাদেক মিয়ার লক্ষ্য। হাট-বাজারের বিভিন্ন দোকানদারদের সঙ্গে তার যেন একরকম সখ্যতা গড়ে উঠেছে। বিভিন্ন দোকানপাটে তিনি নিয়মিত পত্রিকা সরবরাহ করে থাকেন।
ছাদেক মিয়ার সাথে আলাপকালে জানা যায়, তার প্রতিদিন গড় আয় দু’শ টাকা। এই টাকাই চলে তার সংসার। কারো কাছে দারদেনা করেন না তিনি। নিজের যা উপার্জন তাতেই তৃপ্ত ছাদেক মিয়া। পাই নাই, খাই নাই-এমন কোন তাড়না নেই তার। তিনি আক্ষেপ করে বলেন,‘অনেক মানুষ আছে যারা পত্রিকার হকারদের মানুষ বলে মনে করে না। যেমন খুশি বকাঝকা করে। তখনই আমার খুব খারাপ লাগে। নিজেরে ছোট লাগে। তারপরেও আমি খুশি। কারণ, সংখ্যায় কম হলেও এমন কিছু মানুষ আছে সমাজে, যারা আমারে কাছে ডাকেন, আদর করেন এবং চা-নাস্তা খাওয়ান। আমি তাদের কাছে ভাল ভাল কথা শুনতে পারি এবং বড় হওয়ার স্বপ্ন দেখি। পত্রিকা বিক্রি না করলে হয়তো এসব ভাল মানুষদের কাছে যাওয়ার সৌভাগ্য হত না আমার’।
তাকে প্রশ্ন করা হয় যে, বড় হওয়ার কি কি স্বপ্ন দেখেন তিনি? উত্তরে মোঃ ছাদেক মিয়া বলেন,‘ আমি সমাজের সেবা করতে চাই। আমি সমাজ সেবক হতে চাই। মানুষকে সাহায্য-সহযোগিতা করতে চাই। মানুষের সুখে-দুঃখে পাশে দাঁড়াতে চাই’। তাকে যখন বলা হলো, আপনি তো সমাজ সেবক হয়েই আছেন। অনেক কষ্ট করে সংবাদপত্র মানুষের কাছে পৌঁছে দিচ্ছেন, এটা কি সমাজ সেবা না? তখন ছাদেক হাসতে হাসতে বললেন,‘ এমন সমাজ সেবক না, আমি অসহায় মানুষদের সেবা করতে চাই।’

siteadmin

মার্চ 20th, 2015

No Comments

Comments are closed.